নিজেদের ড্রোন ভূপাতিত করল ইসরায়েল

  |  বুধবার, মে ২৬, ২০২১ |  ৯:১৯ অপরাহ্ণ

ইসরায়েলের আয়রন ডোম ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা ভুল করে নিজেদের একটি ড্রোন ভূপাতিত করেছে। গাজা উপত্যকায় হামলা চালানোর সময় তাদের ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা এ ভুল করে। গতকাল মঙ্গলবার স্থানীয় গণমাধ্যমগুলো এ তথ্য জানিয়েছে বলে খবর দিয়েছে। ইসরায়েলি সামরিক বাহিনীর একটি সূত্রের বরাত দিয়ে দেশটি সরকারি সম্প্রচার কেন্দ্র (টেলিভিশন) জানিয়েছে, সবশেষ ‘গার্ডিয়ান অব দ্যা ওয়ালস’ নামে গাজার ওপর যে সামরিক হামলা চালানো হয় তখন ইসরায়েলের আয়রন ডোম ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা ভুল করে নিজেদের একটি সামরিক ড্রোন ভূপাতিত করেছে।

তবে কোন তারিখে ইসরায়েলের সামরিক ড্রোনটিকে ভূপাতিত করা হয়েছে তা সুনির্দিষ্টভাবে উল্লেখ করা হয়নি ইসরায়েলের সরকারি টেলিভিশনে প্রচারিত ওই সংবাদে। ইসরায়েলের ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা আয়রন ডোম ইসরায়েলের দক্ষিণাংশে মোতায়েন করা হয়েছে, যাতে করে গাজা উপত্যকা থেকে ফিলিস্তিনের প্রতিরোধ সংগঠনগুলোর নিক্ষিপ্ত স্বল্প দৈর্ঘ্যের ক্ষেপণাস্ত্র বা রকেটগুলোকে প্রতিরোধ করা যায়।

সাম্প্রতিক সময়ে শেখ জাররাহ মহল্লা থেকে ফিলিস্তিনি অধিবাসীদের উচ্ছেদে ইসরায়েলি আদালতের আদেশের জেরে পবিত্র রমজান মাসে অধিকৃত পূর্ব জেরুসালেমে ফিলিস্তিন ও ইসরায়েলের মধ্যে তীব্র উত্তেজনার সৃষ্টি হয়। বিক্ষুব্ধ ফিলিস্তিনিদের ওপর মসজিদুল আকসা চত্বরে ইসরায়েলি সামরিক সামরিক বাহিনী হামলা চালালে এ সংঘাতের রেশ পশ্চিম তীর, গাজা ও ইসরায়েলের ভেতরেও ছড়িয়ে পড়ে।

ইসরায়েলি যুদ্ধবিমান ১০ মে থেকে গাজায় হামলা শুরু করে। শুক্রবার ইসরায়েল ও ফিলিস্তিনের প্রতিরোধ সংগঠন হামাসের মধ্যে যুদ্ধবিরতি চুক্তি না হওয়া পর্যন্ত গাজার সমুদ্র তীরবর্তী এলাকাগুলো বিধ্বস্ত করে দেয় ইসরায়েলের বিমান বাহিনী। গাজার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের তথ্য অনুসারে, টানা ১১ দিনের ইসরাইলি হামলায় ৬৬ শিশু ও ৩৯ নারীসহ অন্তত ২৫৩ ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছেন। হামলায় আহত হয়েছেন আরো ১ হাজার ৯৪৮ জন। অপরদিকে ফিলিস্তিনিদের ছোড়া রকেট হামলায় তের ইসরাইলি নিহত হন। গত শুক্রবার মিসর প্রস্তাবিত এক যুদ্ধবিরতি চুক্তির মাধ্যমে এ সংঘাতের অবসান হয়।

সূত্র : মিডলইস্ট মনিটর, আনাদেলু এজেন্সি।