৩-০ হলে ভালো হতো: সাকিব

  |  রবিবার, মে ৩০, ২০২১ |  ১২:৫১ অপরাহ্ণ

‘নিখুঁত’ ক্রিকেট খেলার তাগাদা দিয়েছিলেন বাংলাদেশের ওয়ানডে অধিনায়ক তামিম ইকবাল। তৃতীয় ওয়ানডের আগে একই কথা বলেছিলেন মাহমুদ উল্লাহও। কিন্তু গতকাল মোহামেডানের জার্সি উন্মোচনের অনুষ্ঠানে সাকিব আল হাসান বলেছেন, সিরিজ জিততে পেরেই গর্বিত তিনি। নিজের ব্যাটিং ফর্ম নিয়েও উতলা নন বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার।

প্রথম দুই ম্যাচ জিতেই শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে সিরিজ নিজেদের করে ফেলে বাংলাদেশ। কিন্তু প্রত্যাশিত মানের ক্রিকেট খেলতে পারেননি তামিমরা। তাঁদেরও সেরকমই মনে হয়েছে। তাই তৃতীয় ম্যাচে বড় ব্যবধানে হারের পর হতাশার কথাই শোনা গেছে ওয়ানডে অধিনায়কের কণ্ঠে। সাকিব অবশ্য সিরিজ জয়কেই অগ্রাধিকার দিয়েছেন, ‘অবশ্যই আমরা যেটা আশা করেছি, তা হয়নি। কিন্তু এটা নিশ্চিত করতে হবে যেন পরবর্তীতে এমনটা আর না হয়। এটাই গুরুত্বপূর্ণ। আমার তো মনে হয় আমরা শ্রীলঙ্কার সঙ্গে প্রথমবার সিরিজ জিতেছি। খুবই ভালো। অবশ্যই ৩-০ হলে ভালো হতো।’ এর পরই গুরুত্বপূর্ণ একটি কথা মনে করিয়ে দিয়েছেন সাকিব, ‘কিন্তু শ্রীলঙ্কা যদি ভালো খেলত তাহলে ফল (সিরিজের) অন্য রকমও হতে পারত।’

দলের সঙ্গে সঙ্গে নিষেধাজ্ঞা থেকে ফেরার পর সাকিবের ব্যাটেও নজর রাখছেন সবাই। শ্রীলঙ্কা সিরিজের তিন ম্যাচেই ‘কথা বলেনি’ সাকিবের ব্যাট। ২০১৯ বিশ্বকাপে তিন নম্বরে অবিশ্বাস্য ব্যাটিং করেছিলেন তিনি। কিন্তু নিষেধাজ্ঞা ও চোটের কারণে এক বছরেরও বেশি সময় পরে ক্রিকেটে ফেরা সাকিবের ব্যাটে সেই দাপট নেই। একটি প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেছেন, ‘আপনারা দেখেছেন কেমন গেছে। এটার মূল্যায়ন করার কী আছে? অবশ্যই যেটা আমার প্রত্যাশা ছিল, তা হয়নি। কিন্তু এ রকম হতেই পারে। নিশ্চিত করতে হবে যে পরেরবার যেন এ রকম না হয়।’

জাতীয় দলে তিন নম্বরে ব্যাট করতে স্বচ্ছন্দবোধ করেন সাকিব আল হাসান। এই পজিশনে নামলে বাড়তি সময় পাওয়া যায়। আর তাঁর মানের ব্যাটসম্যান যত বেশি সময় উইকেটে থাকার সুযোগ পাবে, ততই লাভ দলেরও। তবে ক্লাব কিংবা ফ্র্যাঞ্চাইজি ক্রিকেটে নিজের ব্যাটিং পজিশন নিয়ে সম্ভবত অতটা চিন্তিত নন সাকিব। আইপিএলে মিডল অর্ডারে খেলেন। আগামীকাল শুরু হতে যাওয়া ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে মোহামেডানের জার্সি গায়েও যেকোনো পজিশনে ব্যাটিং করতে প্রস্তুত তিনি, ‘দেখা যাক, যেটা দলের জন্য ভালো হয়, সেটাই আমার জন্য গুরুত্বপূর্ণ। তার জন্য তিন-চার-পাঁচ-ছয় কিংবা শেষদিকে ব্যাটিং পেলেও আমার কোনো সমস্যা নেই।’

ঢাকার অভিজাত একটি হোটেলে অনুষ্ঠিত মোহামেডানের জার্সি উন্মোচনের অনুষ্ঠানে আসন্ন লিগে নিজের প্রত্যাশাও ব্যক্ত করেছেন সাকিব, ‘লক্ষ্য তো অবশ্যই থাকবে যেন (পয়েন্ট) তালিকার ওপরের দিকে থাকতে পারি। কিন্তু লিগটা আসলে অনেক লম্বা। এখানে ম্যাচ বাই ম্যাচ যাওয়াটাই গুরুত্বপূর্ণ। আমাদের প্রথম লক্ষ্য প্রথম ম্যাচটা জেতা, যেহেতু একের পর এক খেলা…টি-টোয়েন্টিতে ধারাবাহিকতা ধরে রাখা খুব গুরুত্বপূর্ণ। প্রথম ম্যাচ থেকেই আমরা ধারাবাহিকতা ধরে রাখতে চাই। এটা ধরে রাখতে পারলে ভালো। আর টি-টোয়েন্টিতে ছোট দল ও বড় দলের মধ্যে খুব একটা পার্থক্য থাকে না। নির্দিষ্ট দিনে যে ভালো খেলবে সে-ই জিতবে। এ কারণেই ধারাবাহিক হওয়া খুব গুরুত্বপূর্ণ।’

উল্লেখ্য, করোনার কারণে গত বছরের মার্চে স্থগিত ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ শুরু হচ্ছে আগামীকাল। একেবারে নতুন করে এবং নতুন ফরম্যাটে— ওয়ানডের বদলে হবে টি-টোয়েন্টি।