জাতিসংঘে স্থান পায়নি ‘রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন’

  |  Sunday, June 20th, 2021 |  10:36 pm
রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন
মিয়ানমারের বিরুদ্ধে জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদে পাস হওয়া প্রস্তাবে রোহিঙ্গাদের প্রতি সহিংসতার বিষয়টি উঠে এলেও গুরুত্ব পায়নি তাদের প্রত্যাবাসন। আশ্রিত প্রায় ১১ লাখ রোহিঙ্গার নিজ দেশে ফেরার বিষয়টি নিয়ে কোন দিক নির্দেশনা না থাকায় ক্ষুব্ধ বাংলাদেশ ভোটই দেয়নি। 

শুক্রবার (১৮ জুন) জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদে মিয়ানমারের জান্তা সরকারের বিরুদ্ধে নিন্দা প্রস্তাব পাস হয়। একই সঙ্গে দেশটির কাছে অস্ত্র বিক্রিতেও নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়। এতে ১১৯টি দেশ সমর্থন দিলেও বেলারুশ বিপক্ষে ভোট দেয়। মিয়ানমারে সবচেয়ে বড় দুই অস্ত্র সরবরাহকারী দেশ চীন রাশিয়াসহ ৩৬টি দেশ ভোট দেয়া থেকে বিরত থাকে।

ভোট দেয়নি বাংলাদেশও। তবে এ অবস্থান বাংলাদেশের কূটনৈতিক প্রতিবাদের অংশ। নিন্দা প্রস্তাবে একেবারেই উঠে আসেনি রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনের ইস্যুটি। সঙ্কট সমাধানে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় চাপ প্রয়োগে ব্যর্থ বলেই মিয়ানমারের এই হাল উল্লেখ করে তীব্র প্রতিবাদ জানান জাতিসংঘে নিযুক্ত বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি রাবাব ফাতিমা। একই সঙ্গে অবিলম্বে ব্যবস্থা নেয়ার তাগিদ দেন তিনি।

দেরিতে হলেও মিয়ানমারের ওপর অস্ত্র নিষেধাজ্ঞাকে উল্লেখযোগ্য পদক্ষেপ বলছেন বিশ্লেষকরা। তবে মিয়ানমারের অভ্যন্তরীণ বিষয়ের চেয়ে রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনেই বেশি জোর দেয়া উচিত বলে মনে করছে সব মহল। বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া ১০ লাখের বেশি রোহিঙ্গাকে তাদের দেশে ফেরানোই মূল চ্যালেঞ্জ। আর সেটি মাথায় রেখেই কূটনৈতিক তৎপরতা চালানোর পরামর্শ তাদের।