ডি কক, মার্ক্রামের দ্যুতিতে সিরিজ জিতল দক্ষিণ আফ্রিকা

  |  রবিবার, জুলাই ৪, ২০২১ |  ৫:৩৭ অপরাহ্ণ

শুরুতে উইকেট হারানো দক্ষিণ আফ্রিকা ঘুরে দাঁড়ালো কুইন্টেন ডি কক, এইডেন মার্ক্রামের ব্যাটে। দুজনেই ফিফটি করে দলকে পাইয়ে দেন জুতসই পুঁজি। পরে কাগিসো রাবাদা, লুঙ্গি এনগিদিদের তোপে এভিন লুইস ছাড়া ওয়েস্ট ইন্ডিজের কেউই তেমন সুবিধা করতে পারেননি।

শনিবার রাতে গ্রানাডায় পঞ্চম ও শেষ টি-টোয়েন্টিতে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে ২৫ রানে হারিয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকা। আগে ব্যাট করে ডি কক, মার্ক্রামের ফিফটিতে ১৬৮ রান করেছিল সফরকারীরা। লুইসের ফিফটির পরও ক্যারিবিয়ানরা থেমেছে ১৪৩ রানে।

এই জয়ে পাঁচ টি-টোয়েন্টি সিরিজ প্রোটিয়ারা জিতল ৩-২ ব্যবধানে।

ফাইনালে পরিণত হওয়া ম্যাচে টস জিতে ব্যাট করতে গিয়ে প্রথমেই টেম্বা বাভুমার উইকেট হারায় সফরকারীরা। ফিডেল এডওয়ার্ডের বলে স্লিপে ক্যাচ দেন দক্ষিণ আফ্রিকান অধিনায়ক।

উইকেট হারানোর চাপ একদমই বুঝতে দেননি মার্ক্রাম-ডি কক। দুজনেই খেলতে  থাকেন দাপট দেখিয়ে। দ্রুত রান আসার সঙ্গে বাড়ে তাদের জুটিও। ৪২ বলে ৪ বাউন্ডারি ২ ছক্কায় ৬০ করা ডি কক আউট হলে ভাঙ্গে ১২৮ রানের জুটি।

মার্ক্রাম ৪৮ বলে ৪ ছক্কা, ৩ চারে করেন ৭০ রান। ওবেদ ম্যাককয়ের বলে তিনি ফিরেছেন ইনিংসের ১৭তম ওভারে। শেষ দিকে আসেনি তেমন কোন ঝড়। ডেভিড মিলার অপরাজিত থাকেন ১৬ বলে ১৮ করে।

১৬৯ রানের লক্ষ্যে নেমে ভালো শুরু পায়নি স্বাগতিকরা। ওপেনার লেন্ডল সিমন্স মাত্র ৩ রান করে শিকার হন জর্জ লিন্ডের। পরে লুইসের সঙ্গে জুটি বেধে পরিস্থিতি সামাল দিচ্ছিলেন ক্রিস গেইল। কিন্তু বিস্ফোরক ব্যাটসম্যানকে পাওয়া গেল না চেনা ছন্দে। ৯ বলা ১১ করা গেইলকে ফেরান তাবরাইজ শামসি। অবশ্য সিমন্স একদিকে রান বাড়ানোয় দ্বিতীয় উইকেটে আসে ৪৫ রান। দশম ওভারে সিমন্সের দৌড়ও থামিয়ে দেন লুঙ্গি এনগিদি।

রান তাড়ায় বাড়তে থাকা চাপ এরপর আর কমাতে পারেনি ক্যারিবিয়ানরা। শেমরন হেটমায়ার ৩৩ রান করলেও লাগিয়ে দেন ৩১ বল। সাতে নেমে নিকোলাস পুরান ১৪ বলে ২০ করে ফিরলে ওয়েস্ট ইন্ডিজেরও কোন আশা থাকেনি।