বরগুনায় সরকারী নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে গ্রামাঞ্চলে সাপ্তাহিক হাট

 তোফায়েল আহমেদ |  Monday, July 5th, 2021 |  3:42 pm

বরগুনা প্রতিনিধি

সরকারী নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাসের সংক্রমণের মধ্যেই বরগুনার আমতলী উপজেলার গ্রামাঞ্চলের সাপ্তাহিক হাট বসছে। হাট গুলোতে মাস্ক ছাড়াই হাজার হাজার মানুষ জমায়েত হয়ে দেদারসে নিত্যপন্য দ্রব্য ক্রয়-বিক্রয় করছে।

এ বাজার নিয়ন্ত্রনে উপজেলা প্রশাসনের নজরদারী নেই বলে অভিযোগ স্থানীয়দের। স্থানীয়রা  অভিযোগ করে বলেন, উপজেলা প্রশাসনকে জানালেও তারা গুরুত্ব দিচ্ছেন না। এতে অনায়সেই স্বাস্থ্যবিধি না মেনেই হাটে হাজার হাজার মানুষ জমায়েত হয়ে ক্রয়-বিক্রয় করছে।

জানতে চাইলে বরগুনা অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট শুভ্রা দাশ বলেন, স্বাস্থ্যবিধি মেনে সাপ্তাহিক হাট বসতে পারবে। ‘

কিন্তু চুনাখালী হাটে ক্রেতা এবং বিক্রেতাদের মধ্যে ৯৫ ভাগ মানুষের মুখে মাস্ক ছিল না। গাদাগাদি করে স্বাস্থ্যবিধি না মেনেই ক্রয়-বিক্রয় করেছেন।

জানাগেছে, প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাস থেকে মানুষকে রক্ষায় গত বৃহস্পতিবার নিধি নিষেধ ঘোষনা করেছে সরকার । ওই বিধি নিষেধ উপজেলা শহরের প্রভাব পড়লেও গ্রামাঞ্চলে এর কোন প্রভাব নেই। গ্রামাঞ্চলের মানুষ অনায়াসে চলাফেরা করছে। সরকারী নিষেধাজ্ঞা মানাতে গ্রামাঞ্চলে উপজেলা প্রশাসনের নজরদাবী নেই। প্রশাসনের নজরদারী না থাকায় গ্রামাঞ্চলের সাপ্তাহিক হাটগুলো দেদারসে বসছে। ওই বাজার গুলোতে স্বাস্থ্যবিধি না মেনে মাস্ক ছাড়াই হাজার হাজার মানুষ জমায়েত হয়ে নিত্যপন্য দ্রব্য ক্রয়-বিক্রয় করছে।

উপজেলায় ৩৫ টি সাপ্তাহিক হাট রয়েছে। ওই হাটগুলোতে সপ্তাহের ৭ দিন হাট বসে। এতে গ্রামাঞ্চলে প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাস ছড়ানোর ঝুঁকি রয়েছে। গ্রামাঞ্চলে হাটগুলোতে প্রশাসনের নজরদাবী এনে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়ার দাবী জানিয়েছেন আমতলী পৌর নাগরিক কমিটির সভাপতি সহকারী অধ্যাপক আবুল হোসেন বিশ্বাস ।

খোঁজ নিয়ে জানাগেছে, শুক্রবার গাজীপুর বন্দর,কলাগাছিয়া, তালুকদার বাজার, হলদিয়া, আঠারোগাছিয়া এবং শনিবার চুনাখালী,  আড়পাঙ্গাশিয়ায় সাপ্তাহিক হাট বসেছে। এ হাটগুলোতে স্বাস্থ্যবিধি না মেনেই হাজার হাজার মানুষ জমায়েত হয়েছে। শনিবার চুনাখালী হাটে ক্রেতা এবং বিক্রেতাদের মধ্যে ৯৫ ভাগ মানুষের মুখে মাস্ক ছিল না। গাদাগাদি করে স্বাস্থ্যবিধি না মেনেই ক্রয়-বিক্রয় করছেন।

শনিবার চুনাখালী হাট ঘুরে দেখা গেছে, স্বাস্থ্যবিধি না মেনে মাস্ক ছাড়াই হাজার হাজার লোক জমায়েত হয়েছেন। তারা দেদারসে ক্রয়-বিক্রয় করছেন। উপজেলা প্রশাসন ও হাট বাজার ইজারাদারদের কোন তদারকি নেই। খবর পেয়ে ওইদিন দুপুরে উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভুমি) মোঃ নাজমুল ইসলাম চুনাখালী হাট পরিদর্শন করেছেন। এসময় মাস্ক ছাড়া মানুষ ক্রয়-বিক্রয় করেছেন বলে অভিযোগ করেন স্থানীয়রা ।পরে  ওই হাটে কিছু মানুষের মাঝে তিনি মাস্ক বিতরন করেন।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কয়েকজন বলেন, সকালে উপজেলা প্রশাসনকে চুনাখালী বাজারের লোক জমায়েতের বিষয়টি জানানোর পরও  কোন ব্যবস্থা নেয়নি।