বান্দরবানে রাঙ্গুনিয়ার পদুয়ার নারীর লাশ উদ্ধার!

 মুহাম্মদ দেলোয়ার হোসাইন, রাঙ্গুনিয়া উপজেলা। |  Monday, August 9th, 2021 |  11:26 pm

বান্দরবান সদর থানাধীন ২ নং কোহালং ইউনিয়নের গলাচিপা এলাকা থেকে পাওয়া হাত পা বাঁধা এক নারীর জবাই করা লাশের পরিচয় পাওয়া গেছে।
নিহত তরুণীর নাম রুপা আকতার (১৬)। তিনি রাঙ্গুনিয়া উপজেলা পদুয়া ইউপি ধলিয়া পাড়ার বাসিন্দা নুরুল ইসলাম প্রকাশ বাশির মেয়ে।
পুলিশ খবর পেয়ে শনিবার রাত সাড়ে ১০ টার দিকে গলাচিপা এলাকার জাহাঙ্গীর বাগ নামক স্থান থেকে হাত-পা বাঁধা অবস্থায় জবাই করা ঐ নারীর লাশ উদ্ধার করে।
প্রেমঘটিত ব্যাপার নিয়ে এই হত্যার ঘটনা ঘটেছে বলে পুলিশ প্রাথমিকভাবে নিশ্চিত হয়েছে।
নিহত তরুণীর ভাই মোঃ ওবাইদুল ইসলাম জানান,
তার বোনের সাথে পাশ্ববর্তী ডাকবাংলা বিহার পাড়া মোঃ রকি মিয়ার বখাটে ছেলে মোঃ কাজলের প্রেমের সম্পর্ক ছিল। কিন্তু পরিবার তাদের এই সম্পর্ক মেনে নেয়নি। গত ছয় মাস আগে পারিবারিকভাবে আমার বোনকে পাশ্ববর্তী রাঙ্গামাটি জেলার রাইখালী ইউনিয়ন ৫ নং খন্দখাটা ওয়ার্ডের মৃত লতিফুররহমানের ছেলে মোঃ হায়দারের সাথে বিয়ে দেয়া হয়। গত ১০/১২ দিন আগে আমার বোন আমাদের বাড়িতে বেড়াতে আসে।
ঘটনার দিন সন্ধায় কাজল আমার বোনের সাথে মোবাইলে যোগাযোগ করে তার সাথে দেখা করতে বলে। আমার বোন সবার অজান্তে কাজলের সাথে দেখা করতে বের হয়ে আর ফিরে আসেনি।
সে বাড়িতে ফিরে না আসায় আমরা রাতে বিভিন্ন জায়গায় খোজাখুজি করে পায়নি। সকালে জানতে পারি আমার বোনের গলাকাটা লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। কাজল আমার বোনকে বিয়ে করতে ব্যর্থ হয়ে প্রতিশোধপরায়ণ হয়ে আমার বোনকে খুন করেছে।
তরুণীর স্বামী জানান, আমার বাড়ি থেকে গত ৩০ জুলাই ২০২১ বাপের বাড়িতে বেড়াতে যায়, আমার স্ত্রী ৪ মাসের অন্তঃসত্ত্বা ছিল। আমি দোষীদের তদন্তপূর্বক দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করছি। এ ব্যাপারে বান্দরবান সদর থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েেছ।

পুলিশ সুত্রে জানা গেছে, রবিবার (৮ আগষ্ট২০২১) ঐ এলাকার কয়েকজন লোক বাঁধা অবস্থায় এক ঝোপের আড়ালে লাশটি দেখতে পায়। এলাকাবাসী পুলিশকে খবর দিলে, ঘটনাস্থল থেকে পুলিশ লাশটিকে উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য বান্দরবান সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়।

বান্দরবান সদর থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ শহিদুল ইসলাম চৌধুরী জানান, ঘটনাস্থল হতে লাশটি উদ্ধার করা হয়েছে। তবে লাশটিতে গলা ও হাতে আঘাতের চিহ্ন রয়েছ। কে বা কারা খুনের সাথে সম্পৃক্ত তা তদন্ত করে বিস্তারিত জানা যাবে।

এদিকে চন্দ্রঘোনা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ ইকবাল বাহার চৌধুরী জানান, কে বা কারা খুনের সাথে সম্পৃক্ত তদন্ত করে আসল খুনীদের গ্রেফতারের পক্রিয়া চলছে।