তথ্যপ্রযুক্তি আইনে রাবি সাংবাদিককে গ্রেপ্তারের ঘটনায় চবিসাসের নিন্দা ও প্রতিবাদ

122

ডেস্ক নিউজ।। তথ্যপ্রযুক্তি আইনে করা মামলায় রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি ও দৈনিক যুগান্তরের বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক মানিক রায়হান বাপ্পীকে গ্রেপ্তারের ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতি (চবিসাস)।

আজ সোমবার (১৬ নভেম্বর) সকালে সংগঠনটির সভাপতি আব্দুল্লাহ আল ফয়সাল ও সাধারণ সম্পাদক জোবায়ের চৌধুরী এক যৌথ বিবৃতিতে এমন প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন। এসময় অবিলম্বে এ ভিত্তিহীন মামলার প্রত্যাহারসহ মানিক রাইহান বাপ্পীর নিঃশর্ত মুক্তির দাবি জানান তারা।

বিবৃতিতে সমিতির নেতৃবৃন্দ বলেন, ২০১৫ সালে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ সোহরাওয়ার্দী হলের আসন বরাদ্দে শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে অনৈতিকভাবে অর্থ আদায়ের অভিযোগ ওঠে হলের আবাসিক শিক্ষক ও কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের শিক্ষক কাজী জাহিদের বিরূদ্ধে। সেই ঘটনায় ক্যাম্পাস সাংবাদিকদের সংবাদ প্রকাশের জের ধরে ওই শিক্ষক আইসিটি আইনে বাপ্পীসহ সাতজনের বিরূদ্ধে মামলা করেন। মামলার প্রেক্ষিতে গত ১৩ নভেম্বর নিজ বাসা থেকে পুলিশ বাপ্পীকে গ্রেপ্তার করে কারাগারে পাঠায়।

যৌথ বিবৃতিতে সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ বলেন, ক্যাম্পাস সাংবাদিকতার অর্ধশত বছরের ইতিহাসে এই প্রথম কোনো সাংবাদিককে তার পেশাগত দায়িত্ব পালনের জন্য কারাবরণ করতে হলো। আর এর মাধ্যমে ক্যাম্পাস সাংবাদিকতার ইতিহাসে একটি কালো অধ্যায় রচিত হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের মতো জায়গায় সাংবাদিকরা পেশাগত দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে এভাবে হামলা-মামলার শিকার হলে ক্যাম্পাসগুলোতে সাংবাদিকতার পথ সংকুচিত হয়ে যাবে। যা স্বাধীন সাংবাদিকতার জন্য অশনিসংকেত ও নিন্দনীয়ও বটে।

নেতৃবৃন্দ মনে করেন, এ ধরনের ঘটনা বাক ও সংবাদক্ষেত্রের স্বাধীনতাকে বাধাগ্রস্ত করে। যা মোটেই কাম্য নয়। তাই অবিলম্বে এ ভিত্তিহীন মামলার প্রত্যাহারসহ মানিক রাইহান বাপ্পীর নিঃশর্ত মুক্তি দেয়ার জোর দাবি জানান চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতি (চবিসাস)।