শীতে করোনা ঠেকাতে ব্যাপক প্রস্তুতি নিয়েছিঃ প্রধানমন্ত্রী

114
ফাইল ছবি

অনলাইন ডেস্ক।। করোনাভাইরাসের দ্বিতীয় ঢেউ ও শীতকালে সংক্রমণ বৃদ্ধির যে আশঙ্কা করা হচ্ছে, তা মোকাবেলায় ব্যাপক প্রস্তুতি গ্রহণ করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি জানান, আসন্ন শীত মৌসুমে যাতে করোনা বাড়তে না পারে, সে জন্য ‘নো মাস্ক-নো সার্ভিস’ নীতি বাস্তবায়নের নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। দেশের পয়েন্ট অব এন্ট্রিগুলোতে স্ক্রিনিং অব্যাহত রয়েছে। বিদেশফেরতদের ১৪ দিনের কোয়ারেন্টিন বাধ্যতামূলক করা হয়েছে।

গতকাল বুধবার (১৮ নভেম্বর) জাতীয় সংসদে লিখিত প্রশ্নোত্তরে তিনি এসব কথা বলেন। স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে অধিবেশনে শীতকালে করোনা সংক্রমণ বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেন প্রধানমন্ত্রী।

সরকারি দলের সদস্য দিদারুল আলমের প্রশ্নের জবাবে তিনি জানান, কভিড-১৯ প্রতিরোধ ও নিয়ন্ত্রণে নেওয়া কর্মপরিকল্পনা অনুযায়ী কার্যক্রম পরিচালনা করা হচ্ছে। এরই মধ্যে তিন কোটি ভ্যাকসিন আমদানির লক্ষ্যে সরকারের সঙ্গে ভারতের সিরাম ইনস্টিটিউট ও বেক্সিমকো ফার্মার সঙ্গে তৃতীয়পক্ষীয় চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে।

একই প্রশ্নের জবাবে প্রধানমন্ত্রী জানান, সরকারের দূরদর্শী নেতৃত্ব, সমুচিত সিদ্ধান্ত এবং দক্ষ ব্যবস্থাপনায় এখন পর্যন্ত কভিড-১৯ বিশ্ব মহামারিকে সফলভাবে মোকাবেলা করা সম্ভব হয়েছে। এ মুহূর্তে বাংলাদেশে কভিড-১৯-এর প্রকোপ কিছুটা কমে এলেও তা আসন্ন শীতকালে আবারও বেড়ে যেতে পারে বলে বিশেষজ্ঞরা অভিমত ব্যক্ত করেছেন। এরই মধ্যে ইউরোপ ও আমেরিকায় দ্বিতীয় ঢেউ শুরু হয়েছে।

সরকারি দলের আরেক সদস্য এ কে এম রহমতুল্লাহ্র প্রশ্নের জবাবে শেখ হাসিনা বলেন, করোনাকালে আমরা উন্নয়ন সহযোগী দেশগুলোর কাছ থেকে জরুরি আপৎকালীন অর্থায়নের ব্যবস্থা করতে পেরেছি। করোনাভাইরাস মোকাবেলায় বাংলাদেশ জাপানের কাছ থেকে আপৎকালীন সহায়তা হিসেবে দুই হাজার ৭২০ কোটি টাকা আর্থিক সহায়তা পাচ্ছে।