চট্টগ্রামের অবৈধ ইটভাটা বন্ধে ব্যবস্থার নির্দেশ হাইকোর্টের

38

সাত দিনের মধ্যে চট্টগ্রামের সকল অবৈধ ইটভাটা বন্ধে ব্যবস্থা নিতে সংশ্লিষ্টদের প্রতি নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। একইসঙ্গে বৈধ ইটাভাটায় জ্বালানি হিসেবে কাঠের ব্যবহার ও কৃষি জমি বা পাহাড়ের মাটি কেটে ব্যবহারকারীদের তালিকাও দাখিল করতে বলা হয়েছে।

গণমাধ্যমে প্রকাশিত এ সংক্রান্ত প্রতিবেদন সংযুক্ত করে হিউম্যান রাইটস অ্যান্ড পিস ফর বাংলাদেশের পক্ষে জনস্বার্থে দায়ের করা এক রিট আবেদনের প্রাথমিক শুনানি নিয়ে সোমবার (১৪ ডিসেম্বর) হাইকোর্টের বিচারপতি মো. মজিবুর রহমান মিয়া ও বিচারপতি মহি উদ্দিন শামীমের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ রুলসহ এ আদেশ দেন।

আদালতে আজ আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী মনজিল মোরসেদ। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল নওরোজ রাসেল চৌধুরী।

আইনজীবী মনজিল মোরসেদ জানান, সাত দিনের মধ্যে চট্টগ্রামের সকল অবৈধ ইটভাটা বন্ধে ব্যবস্থা নিতে নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। বন্ধ করে ৩০ দিনের মধ্যে আদালতে প্রতিবেদন দাখিল করতে হবে। একইসঙ্গে বৈধ ইটাভাটায় জ্বালানি হিসেবে কাঠের ব্যবহার এবং কৃষি জমি বা পাহাড়ের মাটি কেটে ব্যবহারকারীদের তালিকাও দাখিল করতে বলা হয়েছে।

চট্টগ্রামের বিভাগীয় কমিশনার, জেলা প্রশাসক ও পরিবেশ অধিদফতরের উপ-পরিচালককে আদালতের এ নির্দেশ প্রতিপালন করতে হবে। এ বিষয়ে পরবর্তী আদেশের জন্য ১৮ জানুয়ারি দিন ঠিক করেছেন উচ্চ আদালত।

এর আগে ২৯ নভেম্বর গণমাধ্যমে প্রকাশিত প্রতিবেদন সংযুক্ত করে হিউম্যান রাইটস অ্যান্ড পিস ফর বাংলাদেশ এ সংক্রান্ত একটি রিট দায়ের করেছিল। আজ শুনানি করে আদালত এই আদেশ দেন।