চট্টগ্রাম জেলা সামগ্রিক উন্নয়নে অত্যন্ত দক্ষতার সাথে কাজ করেছেন ইলিয়াস: এবিএম আজাদ

68

চট্টলা২৪ ডেস্ক।।

চট্টগ্রাম বিভাগীয় কমিশনার এবিএম আজাদ এনডিসি বলেছেন, চট্টগ্রাম জেলার সামগ্রিক উন্নয়নে অত্যন্ত দক্ষতার সাথে ও সুচারুভাবে কাজ করেছেন চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক (ডিসি) মোহাম্মদ ইলিয়াস হোসেন। করোনাকালীন এ সময়ে ডিসি নিজেই স্বপরিবারে করোনা আক্রান্ত ছিলেন। দেশের ক্রান্তিকালে করোনা থেকে মানুষকে নিরাপদ রাখতে জীবনবাজি রেখে যে সাহসী ভূমিকা তিনি দেখিয়েছেন এজন্য চট্টগ্রামবাসী তাকে স্মরণ রাখবে।

করোনা আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসা সহায়তার পাশাপাশি ত্রাণ বিতরণ কার্যক্রমেও তিনি সঠিক নেতৃত্ব দিয়েছেন। সে এডমিন সার্ভিসের উজ্বল নক্ষত্র। এ জন্য চট্টগ্রাম অন্যান্য জেলার চেয়ে ভালো অবস্থানে রয়েছে। কাজের স্বীকৃতি হিসেবে জনপ্রশাসন পদক, প্রাথমিক শিক্ষা পদক ও ডিজিটাল ওয়ার্ল্ড পুরস্কারসহ আরো অনেক পুরস্কার অর্জন করেছেন ডিসি ইলিয়াস হোসেন। এটাই তার দক্ষতার প্রমাণ।

আজ ২৫ ডিসেম্বর ২০২০ ইংরেজি শুক্রবার বিকেল সাড়ে ৩টায় চট্টগ্রাম অফিসার্স ক্লাব আয়োজিত চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক (ডিসি) ও অফিসার্স ক্লাবের সভাপতি মোহাম্মদ ইলিয়াস হোসেনের বদলিজনিত বিদায় সংবর্ধনায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

অনুষ্ঠানের শুরুতে জেলা প্রশাসক ইলিয়াস হোসেনের হাতে ক্রেস্ট, ফুল ও উপহার সামগ্রী দিয়ে বিদায় সংবর্ধনা প্রদান করা হয়।

তিনি বলেন, ইলিয়াস হোসেন সরকারের অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ জ্বালানী ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রনালয়ে বদলী হয়েছেন। চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক হিসেবে তিনি সরকারের উন্নয়নে নিরলসভাবে কাজ করেছেন, মন্ত্রনালয়ে কাজের পরিধি বাড়িয়ে আরো যোগ্য ও দক্ষতার পরিচয় দেবেন বলে আমার বিশ্বাস। অচিরেই সরকারের যুগ্মসচিব পদে পদোন্নতি পেয়ে ইলিয়াস হোসেন কর্মক্ষেত্রে আরো অনেকদুর এগিয়ে যাবে।

সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে বিদায়ী জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ ইলিয়াস হোসেন বলেন, জেলা প্রশাসক হিসেবে চট্টগ্রামে প্রায় তিন বছর দায়িত্ব পালনকালীন সময়ে সরকারী সেবা হয়রানিমুক্তভাবে জনগণের দোরগোড়ায় পৌঁছে দেয়ার চেষ্টা করে গিয়েছি। কেভিডকালীন সময়ে মানুষের পাশে ছিলাম, ভবিষ্যতেও থাকবো। অফিসার্স ক্লাবের সম্প্রসারণ কাজ অব্যাহত রয়েছে। বিভিন্ন ব্যক্তি ও প্রতিষ্টান ক্লাবের উন্নয়নে এগিয়ে এসেছেন।ক্লাবের পাশ্ববর্তী আরো একটি জায়গা নিয়ে ভবন করতে পারলে এটি চট্টগ্রাম ক্লাবের আদলে পরিপূর্ণ রূপ পাবে। দেশপ্রেম নিয়ে কাজ করার অঙ্গীকার ব্যক্ত করে নিজে ও পরিবারের জন্য দোয়া চেয়েছেন তিনি।

অফিসার্স ক্লাবের সহ-সভাপতি ও রাউজান উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান একেএম এহছানুল হায়দার চৌধুরী বাবুল বলেন, যাদের অবদানে চিড়িয়াখানা ও অফিসার্স ক্লাবের আধুনিকায়ন তাঁদের নাম অনার বোর্ডে থাকবে। চট্টগ্রাম জেলার সার্বিক উন্নয়নে ডিসি ইলিয়াস হোসেন অনন্য অবদান রেখেছেন।

চট্টগ্রাম অফিসার্স ক্লাবের সহ-সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আবদুল্লাহ আল রায়হানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত বিদায় সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) ও ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক মোঃ আবু হাসান সিদ্দিক। অন্যান্যেও মধ্যে বক্তব্য রাখেন অফিসার্স ক্লাবের সহ-সভাপতি ও রাউজান উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান একেএম এহছানুল হায়দার চৌধুরী বাবুল, রাশিয়ার অনারারী কনসাল স্থপতি আশিক ইমরান ও ক্লাবের সদস্য এডভোকেট জিনাত সোহানা চৌধুরী। সমগ্র অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আশরাফুল আলম ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট রেজওয়ানা আফরিন। বিদায় সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে জেলা প্রশাসনের সকল এডিসি, নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও অফিসার্স ক্লাবের কর্মকর্তা-সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।