নজিরবিহীন রেকর্ড করে ক্ষমতা ছাড়ছেন ট্রাম্প

  |  বৃহস্পতিবার, জানুয়ারি ১৪, ২০২১ |  ৪:৩১ অপরাহ্ণ

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট হিসেবে ক্ষমতা হস্তান্তরের আগ মুহূর্তেও নতুন রেকর্ড গড়লেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। দু’বার অভিশংসিত হওয়া প্রথম মার্কিন প্রেসিডেন্ট হলেন তিনি।

এর আগে ২০১৯ সালের ডিসেম্বরে ক্ষমতার অপব্যবহার ও কংগ্রেসের কাজে বাধা সৃষ্টির অভিযোগে হাউস অব রিপ্রেজেন্টেটিভসে অভিশংসিত হন ট্রাম্প।
t2

এবার চলতি বছরের ৬ জানুয়ারি যুক্তরাষ্ট্রের কংগ্রেস ভবন ক্যাপিটলে ট্রাম্পের উগ্র সমর্থকদের সশস্ত্র হামলায় উসকানি দেওয়ার অভিযোগে ১৪ জানুয়ারি দ্বিতীয়বারের মতো অভিশংসিত হলেন ট্রাম্প।

গত বছরের ৩ নভেম্বর অনুষ্ঠিত মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ডেমোক্র্যাট প্রার্থী জো বাইডেনের কাছে পরাজয়ের পরও তা মেনে নিতে নারাজ ট্রাম্প সমর্থকরা।

শুরু থেকেই ট্রাম্প নিজেও নির্বাচনে কারচুপির অভিযোগ এনে দাবি করেছেন সুষ্ঠু নির্বাচন হলে তিনিই জিততেন।

গত ৬ জানুয়ারি বাইডেনের বিজয় আনুষ্ঠানিকভাবে অনুমোদনের জন্য কংগ্রেসে যৌথ অধিবেশনে বসেন আইনপ্রণেতারা।

অধিবেশন চলাকালেই পুলিশ ও নিরাপত্তা বাহিনীর ব্যারিকেড ভেঙে ক্যাপিটল ভবনে ঢুকে হাউসের প্রতিনিধিদের জিম্মি করে তাণ্ডব চালান এবং ভাঙচুর করেন ট্রাম্পের সশস্ত্র সমর্থকরা।

নির্বাচনে কারচুপি হয়েছে দাবি করে ‘সেইভ আমেরিকা’, ‘ট্রাম্প ইজ মাই প্রেসিডেন্ট’ ব্যানার হাতে স্লোগান তোলেন তারা। এসময় ক্যাপিটল পুলিশ অফিসারসহ পাঁচজনের মৃত্যু হয়।
1610616771.t1
এ ঘটনা চলাকালে এক টুইটে হামলাকারীদের ‘ভালোবাসি’ বলে তাদের ‘দেশপ্রেমিক’ হিসেবে উল্লেখ করে বাড়ি ফিরে যেতে বলেন ট্রাম্প।

একের পর এক টুইট বার্তায় হামলাকারীদের উসকে দেওয়ার মাধ্যমে টুইটারের নিয়ম ভঙ্গের অভিযোগ এনে তার অ্যাকাউন্টটি পুরোপুরি বন্ধ করে দেয় টুইটার।

একই অভিযোগে ফেসবুকও ট্রাম্পের অ্যাকাউন্ট অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণা করে।

যুক্তরাষ্ট্রের কংগ্রেসে অভূতপূর্ব এ হামলার পরও এর কোনো রকম দায় নিতে অস্বীকার করেন ট্রাম্প। ‘নজিরবিহীন এ হামলায় হতাশ হয়ে’ পদত্যাগ করেন ট্রাম্প প্রশাসনের গুরুত্বপূর্ণ অনেক কর্মকর্তা।

উল্টো ক্যাপিটলে হামলার পর মঙ্গলবার (১২ জানুয়ারি) প্রথম জনসমক্ষে দেওয়া বক্তৃতায় ট্রাম্প বলেন, ‘অভিশংসন ভয়াবহ বিপদ ডেকে আনতে পারে।’

প্রেসিডেন্ট হিসেবে ক্ষমতা নেওয়ার পর থেকেই নানা কারণে শিরোনাম হয়েছেন ট্রাম্প। সব ঠিক থাকলে ২০ জানুয়ারি যুক্তরাষ্ট্রের ৪৬তম প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ নেবেন জো বাইডেন।

এ শপথ গ্রহণ ও অভিষেক অনুষ্ঠানে যাবেন না বলে আগেই ঘোষণা দিয়েছেন ট্রাম্প।

সব মিলিয়ে নজিরবিহীন সব রেকর্ড করে ক্ষমতা ছাড়তে যাচ্ছেন তিনি।