হাটহাজারীতে ইউপি সচিব কানুন নাথের বিরুদ্ধে মামলা, বেতন -ভাতা বন্ধ

  |  শুক্রবার, ফেব্রুয়ারি ১৯, ২০২১ |  ৬:০৩ অপরাহ্ণ
হাটহাজারী

চট্রগ্রাম হাটহাজারী উপজেলার মির্জাপুর ইউনিয়ন পরিষদ সচিব কানু কুমার নাথ এর বিরুদ্ধে বিভাগীয় মামলা করেছে স্থানীয় সরকার।

সচিবের স্বাক্ষরবিহীন জন্ম নিবন্ধন সনদ ইস্যুকরণ, হোল্ডিং ট্যাক্স আদায়ে অনিয়ম, অফিস অব্যবস্থাপনা নিয়মিত অফিস না করা ও সচিব হিসেবে কর্মরত থেকেও একই সাথে তথ্য গোপন করে দীর্ঘ ২৭ বছর ধরে চট্টগ্রাম জেলার ফটিকছড়ি উপজেলার হেঁয়াকো বনানী ডিগ্রি কলেজের সহকারী অধ্যাপক (বাংলা) হিসেবে দায়িত্ব পালন এবং দুই পদের বিপরীতে সরকারি কোষাগার থেকে বেতন ভাতা তুলে নেয়ার অভিযোগে এ শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়।

বৃহস্পতিবার (১৮ ফেব্রুয়ারী) চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসকের কার্যালয় স্থানীয় সরকার শাখা ভারপ্রাপ্ত উপ-পরিচালক বদিউল আলম স্বাক্ষরিত এক অফিস আদেশে এ তথ্য জানানো হয়।

অভিযোগের বিষয়ে আগামী সাত কার্যদিবসের মধ্যে কারণ দর্শানোর জবাব প্রদানের জন্যও নির্দেশ দেয়া হয় কানু কুমার নাথকে। একই সাথে দুই প্রতিষ্ঠান থেকে বেতন-ভাতা গ্রহণের কারণে পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত ইউপি সচিব হিসেবে তার বেতন ভাতা বন্ধ থাকার নির্দেশ প্রদান করা হয়।

পুনারাদেশ না দেয়া পর্যন্ত মির্জাপুর ইউনিয়ন পরিষদের কার্যক্রম সচল রাখার স্বার্থে একই উপজেলার গুমানমর্দন ইউনিয়ন পরিষদের সচিব মো. আবু তৈয়বকে নিজ দায়িত্বের অতিরিক্ত হিসেবে সপ্তাহে দুই দিন মির্জাপুর ইউনিয়ন পরিষদের সচিবের দায়িত্ব পালনের জন্য নির্দেশ প্রদান করা হয়।

কানু কুমার নাথের বিরুদ্ধে অভিযোগনামা ও অভিযোগ বিবরণী প্রস্তুতপূর্বক প্রেরণের জন্য উপজেলা নির্বাহী অফিসার রুহুল আমিনকে অনুরোধ জানিয়েছেন স্থানীয় সরকার।

এদিকে একই দিন শিক্ষকতা করা সেই হেঁয়াকো বনানি ডিগ্রি কলেজের পক্ষ থেকে দ্বিতীয়বারের মত শোকজ করা হয় কানু কুমার নাথকে। সত্যতা নিশ্চিত করেন কলেজের অধ্যক্ষ ফারুকুর রহমান। তিনি বলেন তিন কার্য দিবসের মধ্যে জবাব না দেয়া বা জবাব সন্তোষজনক না হলে তাকে সাময়িক বরখাস্ত করাসহ বিধিমোতাবেক পরবর্তী ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সচিব কানু কুমার নাথের মোবাইলে বার বার ফোন কল দিলেও মোবাইল বন্ধ থাকায় বক্তব্যে নেয়া সম্ভব হয়নি।