ভোরের আলোয় পতেঙ্গা সৈকতে সাইক্লিং

  |  শুক্রবার, মার্চ ২৬, ২০২১ |  ৩:১৩ অপরাহ্ণ

বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবর্ষ ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে চট্টগ্রামে প্রথমবারের মতো অনুষ্ঠিত হলো সাইক্লিং প্রতিযোগিতা।

জেলা ক্রীড়া সংস্থার আয়োজনে শুক্রবার (২৬ মার্চ) ভোর ৬টা ১৫ মিনিটে নগরের পতেঙ্গা সমুদ্র সৈকত থেকে তিন ক্যাটাগরিতে সড়কে সাইক্লিং করেন প্রতিযোগীরা।

পুরুষদের ১০০ কিলোমিটার ও মহিলাদের ৬০ কিলোমিটার সাইক্লিং প্রতিযোগিতা চলাকালে দর্শকরা তা উপভোগ করেন। প্রতিযোগিতায় মহিলাদের মধ্যে ১ম হন সাদিয়া সিদ্দিকি, ২য় শবনম আক্তার ও ৩য় হন দোলা বড়ুয়া। পুরুষদের ১০০ কিলোমিটার এমটিবিতে ১ম হন মো. দেলোয়ার হোসেন, ২য় খন্দকার আফনান ও ৩য় হন শেখ নাহিদ উদ্দিন। ১০০ কিলোমিটার রোড বাইকে ১ম হন আদনান রহমান, ২য় রাফাত মজুমদার ও ৩য় হন মো. আলাউদ্দিন।

বিজয়ীদের পুরস্কার তুলে দেন সাবেক সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন, জেলা ক্রীড়া সংস্থার সহ সভাপতি মো. হাফিজুর রহমান, বাংলাদেশ সাইক্লিং ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক তাহেরুল আলম চৌধুরী স্বপন, জেলা ক্রীড়া সংস্থার যুগ্ম সম্পাদক আমিনুল ইসলাম, মশিউর রহমান চৌধুরী সহ সাইক্লিং কমিটির কর্মকর্তারা।

সাইক্লিং কমিটির সাধারণ সম্পাদক আবু হেনা মোস্তফা কামাল বলেন, ১০ লাখ টাকা ব্যয়ে আয়োজিত এই প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণের জন্য ৫০০ আবেদনকারীর মধ্য থেকে ১০০ জনকে মনোনীত করা হয়। যার মধ্যে ২০ জন মহিলা রয়েছেন।

৬০ কিলোমিটার সাইক্লিংয়ে ১ম হওয়া সাদিয়া সিদ্দিকি বাংলানিউজকে বলেন, এ ধরনের প্রতিযোগিতা নিয়মিত আয়োজন করা হলে তরুণ সমাজই উপকৃত হবে। এতে তারা আড্ডা দেওয়া, মাদক গ্রহণ, অপরাজনীতি থেকে দূরে থাকবে।

প্রসঙ্গত, বহির্বিশ্বের মতো আমাদের দেশেও বাইসাইকেল এর জনপ্রিয়তা বেড়েই চলেছে। উদ্যমী, তরুণ কিছু যুবক মিলে নগরে গড়ে তুলেছেন বিভিন্ন সাইক্লিং গ্রুপ ও সংগঠন। উঠতি বয়সীদের মধ্যে সাইকেল নিয়ে বাড়তি আগ্রহ লক্ষ্য করা যায়।

যানজটের নগরে বর্তমান সময়ে বাইসাইকেল গুরুত্বপূর্ণ একটি বাহন হয়ে দাঁড়িয়েছে। এমন শিশু খুব কমই পাওয়া যাবে, যাদের শৈশব সাইকেলের সঙ্গে কাটেনি। এছাড়া যানজট থেকে সময় বাঁচাতে অনেক কর্মজীবী সাইকেলের ওপর নির্ভরশীল। সাইক্লিং শুধু চমৎকার শরীরচর্চাই নয়, ক্যান্সারসহ নানা ধরনের রোগের ঝুঁকিও কমিয়ে দেয়।

বাংলাদেশ বর্তমানে বিশ্বের অন্যতম প্রধান বাইসাইকেল প্রস্তুতকারক। দেশের অনেক কোম্পানি বিভিন্ন মডেলের বাইসাইকেল আমদানি ও রফতানি করছে। বন্দরনগর চট্টগ্রামে উঠতি বয়সীদের মধ্যে সাইক্লিংয়ের প্রতি রয়েছে প্রচণ্ড ঝোঁক। তাদের চাহিদা মেটাচ্ছে সাইকেল বাজার। নগরের সাইকেল বাজার নিউমার্কেটের বিপরীতে সদরঘাট রোডে। এখানে রয়েছে ছোট-বড় অনেকগুলো দোকান। এসব দোকান থেকে সাধ এবং সাধ্যের মধ্যে চাহিদামতো কিনে নেওয়া যায় সব বয়সীদের সাইকেল।

গ্লাসগো ইউনিভার্সিটির এক সমীক্ষায় জানা গেছে- হাঁটু, গিটের ব্যথা নিরাময়ে সহজ ব্যায়াম সাইক্লিং, ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে রাখা, পা, উরু, কোমর ও নিতম্বের পেশি সুগঠিত করা, রক্তে কোলেস্টেরলের মাত্রা কমানো, হার্ট ও ফুসফুসের কার্যকারিতা বাড়ানোর জন্য সাইক্লিংয়ের বিকল্প নেই। সাইক্লিংয়ের ফলে শারীরিক পরিশ্রম হয়, ফলে ওজন বাড়ার আশঙ্কাও কমে, শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা ও মস্তিষ্কের কর্মক্ষমতা বাড়ে।

খোলা আকাশের নিচে, গাছে ঘেরা রাস্তায় সাইকেল চালালে প্রকৃতির সঙ্গে আমাদের বন্ধুত্ব তৈরি হয়। এতে মাথা থেকে দুশ্চিন্তাগুলো বাতাসের সঙ্গে মিলিয়ে যায়। সকালের দিকে দূষণ ও গাড়ির চাপ কম থাকে। তাই সকালে সাইক্লিং করা, সকালে না পারলে সারাদিনে কিছুটা সময় বের করে সাইকেল চালানোর পরামর্শ দিচ্ছেন শরীরচর্চাবিদরা।